দিনাজপুরে কোচিং সেন্টারের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

দিনাজপুরে কোচিং সেন্টারের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

দিনাজপুর প্রতিদিন

দিনাজপুরে কোচিং সেন্টারের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ সরকারি নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও স্বাস্থ্যবিধি না মেনে কোচিং সেন্টার চালু রাখায় দিনাজপুরে অনুশীলন কোচিং সেন্টারকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত।

আজ শনিবার বিকেল সাড়ে তিনটায় শহরের সুইহারী এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কোচিং সেন্টার চালু অবস্থায় বিশ^বিদ্যালয় ভর্তি প্রাইভেট প্রোগ্রাম শীর্ষক কোচিং সেন্টার “অনুশীলন” এর পাঠকক্ষে অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। পাঠকক্ষে এইচএসসি প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের কোচিং চলছিল।

অভিযান চলাকালীন অনুশীলনের পরিচালক মো. খাদেমুল ইসলাম এর কাছ থেকে দন্ডবিধি ১৮৬০ এর ২৬৯ ধারা মোতাবেক ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএইচএম মাগ্ফুরুল হাসান আব্বাসী। এসময় তিনি কোচিং সেন্টারটি বন্ধ করে দেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএইচএম মাগ্ফুরুল হাসান আব্বাসী বলেন, করোনার প্রাদুর্ভাবে সরকারি নিষেধাজ্ঞা সত্বেও কিছু কোচিং সেন্টার গোপনে শিক্ষার্থীদের শিক্ষাদান চালিয়ে আসছিল। এরই অংশ হিসেবে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এই কোচিং সেন্টারে অভিযান চালানো হয়।

দিনাজপুরে কোচিং সেন্টারের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

Chirirbandar Facebook Page and group

দিনাজপুর সংবাদাতাঃ সরকারি নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও স্বাস্থ্যবিধি না মেনে কোচিং সেন্টার চালু রাখায় দিনাজপুরে অনুশীলন কোচিং সেন্টারকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত।আজ শনিবার বিকেল সাড়ে তিনটায় শহরের সুইহারী এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কোচিং সেন্টার চালু অবস্থায় বিশ^বিদ্যালয় ভর্তি প্রাইভেট প্রোগ্রাম শীর্ষক কোচিং সেন্টার “অনুশীলন” এর পাঠকক্ষে অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। পাঠকক্ষে এইচএসসি প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের কোচিং চলছিল।অভিযান চলাকালীন অনুশীলনের পরিচালক মো. খাদেমুল ইসলাম এর কাছ থেকে দন্ডবিধি ১৮৬০ এর ২৬৯ ধারা মোতাবেক ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএইচএম মাগ্ফুরুল হাসান আব্বাসী। এসময় তিনি কোচিং সেন্টারটি বন্ধ করে দেন।নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএইচএম মাগ্ফুরুল হাসান আব্বাসী বলেন, করোনার প্রাদুর্ভাবে সরকারি নিষেধাজ্ঞা সত্বেও কিছু কোচিং সেন্টার গোপনে শিক্ষার্থীদের শিক্ষাদান চালিয়ে আসছিল। এরই অংশ হিসেবে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এই কোচিং সেন্টারে অভিযান চালানো হয়। cb . com 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *