প্রেমিকার বাড়িতে আটক প্রেমিককে উদ্ধার করতে গিয়ে বন্ধু নিহত

প্রেমিকার বাড়িতে আটক প্রেমিককে উদ্ধার করতে গিয়ে বন্ধু নিহত

অপরাধ ও বিচার

প্রেমিকার বাড়িতে আটক প্রেমিককে উদ্ধার করতে গিয়ে বন্ধু নিহত

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় প্রেমিকার বাড়ি থেকে প্রেমিককে উদ্ধার করতে গিয়ে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে। তাঁর নাম মো. পারভেজ হোসেন (২৪)। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত পারভেজ উপজেলার আলাইয়াপুর ইউনিয়নের আক্তারামপুর গ্রামের রহিম উদ্দিনের ছেলে। আহত ব্যক্তিরা হলেন উপজেলার রুদ্রপুর গ্রামের নজির আহমদের ছেলে রিয়াদ হোসেন (২৭), মো. পারভেজ (২৫) ও হেঞ্জু মিয়ার ছেলে আজাদ হোসেন (৩২)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে গতকাল সোমবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে পশ্চিম খালিশপুর গ্রামের একটি মেয়ের (২৭) সঙ্গে দেখা করতে তাঁর বাড়িতে যান প্রেমিক আলাইয়াপুর ইউনিয়নের রুদ্রপুর গ্রামের মো. সুজন (১৮)। একপর্যায়ে মেয়ের পরিবার সুজনকে আটক করে। খবর পেয়ে গতকাল রাতে সুজনের বড় ভাই রিয়াদ হোসেন ওই বাড়িতে যান। তখন মেয়ের পরিবারের লোকজন তাঁদের কাছে ১০ লাখ টাকা দাবি করেন। অন্যথায় তাঁদের মেয়েকে বিয়ে করতে হবে বলে জানিয়ে দেন। তবে ছেলের বয়সের তুলনায় মেয়ের বয়স বেশি হওয়ায় বিয়েতে ছেলের পরিবার রাজি নয় জানিয়ে রাতে সুজনের ভাই বাড়ি ফিরে যান।

প্রেমিকার বাড়িতে আটক প্রেমিককে উদ্ধার করতে গিয়ে বন্ধু নিহত

Chirirbandar Facebook Page and group

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় প্রেমিকার বাড়ি থেকে প্রেমিককে উদ্ধার করতে গিয়ে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে। তাঁর নাম মো. পারভেজ হোসেন (২৪)। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত পারভেজ উপজেলার আলাইয়াপুর ইউনিয়নের আক্তারামপুর গ্রামের রহিম উদ্দিনের ছেলে। আহত ব্যক্তিরা হলেন উপজেলার রুদ্রপুর গ্রামের নজির আহমদের ছেলে রিয়াদ হোসেন (২৭), মো. পারভেজ (২৫) ও হেঞ্জু মিয়ার ছেলে আজাদ হোসেন (৩২)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে গতকাল সোমবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে পশ্চিম খালিশপুর গ্রামের একটি মেয়ের (২৭) সঙ্গে দেখা করতে তাঁর বাড়িতে যান প্রেমিক আলাইয়াপুর ইউনিয়নের রুদ্রপুর গ্রামের মো. সুজন (১৮)। একপর্যায়ে মেয়ের পরিবার সুজনকে আটক করে। খবর পেয়ে গতকাল রাতে সুজনের বড় ভাই রিয়াদ হোসেন ওই বাড়িতে যান। তখন মেয়ের পরিবারের লোকজন তাঁদের কাছে ১০ লাখ টাকা দাবি করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *