বাঁচতে চায় দিনাজপুর সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী "মণি মূর্মু।

বাঁচতে চায় দিনাজপুর সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী “মণি মূর্মু।

দেশের খবর
বাঁচতে চায় দিনাজপুর সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী “মণি মূর্মু।
আপনার সাহায্যে বাঁচতে পারে দরিদ্র, মণি মূমূ্ , (২২) এর জীবন। জীবন বাঁচাতে তার প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন। তার জরায়ুতে টিউমার অপসারণ করা হয়েছিল গত ৮ ফ্রেব্রুয়ারি ২০২১ খ্রিঃ বর্তমানে তার ক্যান্সার সমস্যা দেখা দিয়েছে। সে স্বাভাবিকভাবে কিছু খেতে পারেন না।
মোট চিকিৎসা ব্যয় প্রায় দুই লাখ এর বেশি। এখন প্রতি ২০ দিন পর ২০ হাজার টাকা লাগে একটি করে থেরাপি দিতে যা এখন তার মা ফুল মণি সরেন এর একার পক্ষে বহন করা কঠিন হয়ে পরেছে।
জরুরি ভিত্তিতে তার কেমো থেরাপিসহ উন্নত চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। অন্যথায়, তার জীবন নাশের আশংকা রয়েছে। দিন দিন তার শারীরিক সমস্যা আরো জটিল থেকে জটিলতর হচ্ছে। কিন্তু টাকার অভাবে তার চিকিৎসা বর্তমানে বন্ধপ্রায় রয়েছে।
এই ব্যয়বহুল চিকিৎসার ভার বহন করে তার দরিদ্র পরিবার আজ নিঃস্ব প্রায়। এখন আর তার পরিবারের পক্ষে চিকিৎসা ব্যয় বহন করা সম্ভব হচ্ছে না। অসুস্থ মণি মূমূ্ , এর মাতা ফুলমণি সরেন একজন দিনমজুর। দরিদ্র মাতা মেয়েকে দিনাজপুর সরকারি কলেজ থেকে ম্যানেজমেন্ট এ মাস্টার্স পাশ করিয়েছেন, আর ছেলেটি চিরিরবন্দর সরকারি কলেজে ডিগী দ্বিতীয় বর্ষে মানবিক বিভাগে পড়াশোনা করছে, ও ছোট মেয়ে দিনাজপুর কলেজিয়েট গালস্ স্কুল এন্ড কলেজ বিজ্ঞান বিভাগের ১ম বর্ষে পড়াশোনা করে।



ভূমিহীন ফুলমণি সরেনের জমিজমা সহায়-সম্বল বলতে কিছুই নেই, চিরিরবন্দর উপজেলার ৯নং ভিয়াইল ইউনিয়নের রামপুর মৌজায় সরকারি সম্পত্তিতে বসবাস করেন। এমতাবস্থায় ফুলমণি সরেন অসহায় ও নিরুপায় স্বামী গত হয়েছেন অনেকদিন আগেই, মেয়ের সুচিকিৎসার জন্য সকল হৃদয়বান ও দানশীল ব্যক্তির কাছে আর্থিক সাহায্য কামনা করেছেন।
অসহায় ফুলমণি সরেন চিকিৎসার সাহায্য দিতে সরাসরি অথবা যোগাযোগ করুন মোবাইল নম্বরে- ০১৭৬১৫৫৬৩১৪।
আসুন আমরা অসহায় পরিবারটির পাশে দাঁড়াই, তাকে বাঁচাতে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেই। আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বেঁচে যেতে পারে একটি প্রাণ। তারও ইচ্ছে হয়, সাধ জাগে সুস্থ্য হয়ে বেঁচে থাকার। হয়তো আপনার একটি টাকাই তার বেঁচে যাওয়ায় হতে পারে অবলম্বন। যেকোনোভাবে গোপনে অথবা প্রকাশ্যে তাকে আপনি সহযোগিতা করতে পারেন। সৃষ্টিকর্তা যেন আমাদের সকলের দানের হাত প্রসারিত করে দেন আমিন।
তার ঠিকানাঃ
নাম‌‌: মণি মূমূ্ ,
পিতা: মৃত কালিয়া মূমূ
মাতা: ফুলমণি সরেন
গাম: রামপুর
পোস্ট: ভিয়াইল
থানা: চিরিরবন্দর
জেলা: দিনাজপুর
বাঁচতে চায় দিনাজপুর সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী “মণি মূর্মু।
লেখাটি একটি ফেসবুক গ্রুপে চিরিরবন্দর এর একজন সাংবাদিক পোষ্ট করেছেন। source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *