হাকিমপুরে জামুকা প্রতিনিধি লিয়াকত এর বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন

হাকিমপুরে জামুকা প্রতিনিধি লিয়াকতের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন

দিনাজপুর প্রতিদিন

হাকিমপুরে জামুকা প্রতিনিধি লিয়াকত এর বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন

সংবাদ সম্মেলনঃ দিনাজপুরের হাকিমপুরে জামুকা প্রতিনিধি লিয়াকত আলীকে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে আখ্যায়িত সংবাদ সম্মেলন করেছেন বীর মুক্তিযোদ্ধারা। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী ও জামুকা মহাপরিচালক বরাবর লিখিত অভিযোগও করেছেন তারা।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২ টায় হাকিমপুর প্রেসক্লাবে বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম মিয়া (গেজেট নং-২০২৪) বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষে সংবাদিকদের লিখিত বক্তব্যে বলেন, উপজেলার ধরন্দা গ্রামের মৃত রমজান আলীর ছেলে লিয়াকত আলী একজন ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা। (তার গেজেট নং-২০৫৯)।





তিনি কিভাবে গেজেটভুক্ত হয়েছেন-তা আমাদের বোধগম্য নয়। তিনি গেজেটভুক্ত হওয়ার পর অর্থের বিনিময়ে আরো অনেক মুক্তিযোদ্ধার জন্ম দিয়েছেন। ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা লিয়াকত আলীর বিরুদ্ধে আমরা গত ৩১ ডিসেম্বর মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী ও জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল ( জামুকা) মহাপরিচালক বরাবর লিখিত অভিযোগ করি। মন্ত্রী মহোদয় বিষয়টি তদন্ত করে রিপোর্ট দেয়ার জন্য হাকিমপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ( ইউএনও) নির্দেশ দেন। কিন্ত অজ্ঞাত কারণে ইউএনও আজ পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা গ্রহন করেননি।




আগামী ৬ ফেব্রুয়ারী হাকিমপুর উপজেলায় বীর মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাচাই করা হবে। যাচাই-বাচাই কমিটিতে অভিযুক্ত লিয়াকত আলীকে জামুকার প্রতিনিধি হিসেবে রাখা হয়েছে। এছাড়া জেলা প্রশাসক ও সংসদ সদস্যর প্রতিনিধি হিসেবে রাখা হয়েছে ভূয়া লিয়াকত আলীর মনোনীত প্রতিনিধি সামছুল আলম ও জয়নাল আবেদিনকে। ইতিপৃবেই জয়নাল আবেদিনের বিরুদ্ধে ইউএনওর কাছে আগেই অভিযোগ করা হয়।

সংবাদ সন্মেলনে আরো বলা হয়, বিধি মোতাবেক যাচাই-বাচাই কমিটিতে যুদ্ধকালীন কমান্ডারকে রাখতে হবে। কিন্ত রহস্যজনক কারণে কমিটিতে যুদ্ধকালীন কমান্ডারকে রাখা হয়নি। এতে সরকারের সৎ ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটেনি। যাচাই-বাচাই কমিটিতে বিতর্কিত ব্যক্তিদের রাখা হয়েছে যাচাই-বাচাই প্রশ্নবিদ্ধ হবে। প্রকৃত বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ বাদ পড়তে পারেন। সংবাদ সন্মেলনের মাধ্যমে যাচাই-বাচাই কমিটি থেকে বিতর্কিত ব্যক্তিদের বাদ দেয়ার দাবি জানানো হয়।





জামুকা প্রতিনিধি লিয়াকত আলী বলেন, আমিও সংবাদ সন্মেলনের মাধ্যমে বিস্তারিত জানাবো। এরবেশি কিছু বলতে রাজি হননি তিনি।

হাকিমপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নুর-এ আলম বলেন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী ও জামুকা মহাপরিচালক বিষয়টি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। আগামী ৬ ফেব্রুযারীতে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাচাই করে তদন্ত রিপোর্ট দেয়া হবে।

হাকিমপুরে জামুকা প্রতিনিধি লিয়াকতের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন

aks

1 thought on “হাকিমপুরে জামুকা প্রতিনিধি লিয়াকতের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *